মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:৪১ অপরাহ্ন

গঙ্গাচড়ায় সরকারি রাস্তা দখল করে বাড়ী নির্মাণের অভিযোগ

গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধি::

রংপুরের গঙ্গাচড়ায় সরকারি রেকর্ডভূক্ত রাস্তা দখল করে বাড়ী নির্মান করার অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে। ইউ.পি চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেও সূরাহা পাননি অভিযোগকারীরা।

অভিযোগ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গজঘন্টা ইউনিয়নের উমর গ্রামের আজিতের বাড়ী হতে বালাটারী যাওয়ার সরকারি রেকর্ডভূক্ত রাস্তা দখল করে বাড়ী নির্মান করেছে ওই গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের পুত্র সাইফুল ইসলাম মমিন ও তার ভাইয়েরা। মমিন ওই ইউনিয়নের সংরক্ষিত ৭,৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের ইউ.পি সদস্যা ঝর্না বেগমের স্বামী। তাদের রাস্তা দখল করার পর থেকে পথচারীরা ওই সরকারি রাস্তার পাশে মৃত আনছার আলীর পুত্র মোনজাব আলী ও তার ভাইদের মালিকানাধীন ফসলী জমি দিয়ে যাতায়াত করে। এক পর্যায়ে মোনজাব ও তার ভাইয়েরা ওই জমিতে হাল চাষ করতে গেলে সরকারি রাস্তা দখলকারী সাইফুল ইসলাম মমিন ও তার ভাইয়েরা বাধা প্রদান করে জমি মালিকদের বিভিন্ন প্রকার হুমকি ধামকি প্রদান করে। পরে সরকারি রাস্তা উদ্ধারের জন্য জমি মালিক মোনজাবসহ এলাকাবাসী গজঘন্টা ইউ.পি চেয়ারম্যান, গঙ্গাচড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ করার এক বছর পেরিয়ে গেলেও রাস্তা উদ্ধারের কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি সংশ্লিষ্টরা। অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত বুধবার সরেজমিনে গিয়ে পাওয়া যায় অভিযোগের সত্যতা। ওই ওয়ার্ডের ইউ.পি সদস্য শরিফুল ইসলাম (৬৫), স্থানীয় আজিজুল ইসলাম (৫০), মোজাহারুল ইসলাম (৭২), হাফিজুল ইসলাম (৪৫)সহ আরো অনেকে জানান ইউ.পি সদস্যা ঝর্নার স্বামী সাইফুল ইসলাম মমিন ও তার ভাইয়েরা জোর পূর্বক সরকারি রেকর্ডভূক্ত রাস্তা দখল করে বাড়ী নির্মান করে। তখন থেকে আমরা মোনজাব আলী ও তার ভাইদের মালিকানাধীন জমি দিয়ে যাতায়াত করি। এলাকাবাসী সরকারি রাস্তা দখল মুক্ত করার জন্য দ্রুত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সাইফুল ইসলাম মমিনের ভাই শাহাজাহান ইসলাম সাজু বলেন, আমরা আমাদের জমিতে বাড়ী নির্মান করেছি। এ জায়গায় সরকারি রাস্তা আছে কিনা তা আমাদের জানা নাই। গজঘন্টা ইউ.পি চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলাম ঘুটু সরকারি রাস্তা দখল করে বাড়ী নির্মান করার সত্যতা স্বীকার করে বলেন অভিযোগ পেয়েছি দুপক্ষকে ডেকে আপোষ মিমাংসার চেষ্টা চলছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Nazmul Hasan