সোমবার, ০১ Jun ২০২০, ১০:০২ অপরাহ্ন

রূপগঞ্জে ড্রাগ লাইসেন্স নেই দু’শতাধিক ফার্মেসীর

নিজাম উদ্দিন আহমেদ-রূপগঞ্জ প্রতিনিধি::

রূপগঞ্জের ভূলতা গাউছিয়া এলাকায় অলি গলিতে গড়ে উঠাছে প্রায় দু’শতাধিক ফার্মেসী। এর পরও নেই তাদের ড্রাগ লাইসেন্স। প্রশিক্ষণ ছাড়া ডাক্তার দিয়ে চললে ফার্মেসীগুলো। তার পরও নেই প্রশাসনের তদারকি। উপজেলার সব চেয়ে বেশী ফার্মেসী হচ্ছে ভূলতা তাঁত বাজারে। যার পরিমাণ প্রায় ৩০টির মত। এই তাঁতবাজারের র্ফামাসীগুলোতে মেয়াদ উর্ত্তীন ও নিম্নমানের ঔষধে সয়লাভ। যার মধ্যে মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধের সিংহভাগ এখানে পাওয়া যাচ্ছে। গাউছিয়া তাঁতবাজার মার্কেটের দোকানগুলোকে অনেকেই মিটফোর্ড মার্কেট বলেন। নারায়ণগঞ্জের ঔষধ প্রশাসন কর্মকর্তারা তাঁতবাজারে মেয়াদোর্ত্তীন ও নিম্নমানের ঔষধ তদারকির দায়িত্ব থাকলেও তা দেখে না দেখার ভান করছে বলে অভিযোগ সর্বমহলে।

এলাকাবাসী জানান, তাঁতবাজারে মার্কেটের ফার্মেসীগুলোতে ভেজাল ঔষধ বিক্রি করে। এই ভেজাল ঔষধগুলো দেশের গ্রামাঞ্চলের ডাক্তাররা নিয়ে সেখানকার অশিক্ষিত ও অর্ধশিক্ষিত দিনমজুরদের কাছে বিক্রি করেন। ফলে স্বাস্থ্য ঝুকিতে পড়ে গ্রামের সহজ সরল মানুষ। গ্রামের মানুষ ঔষধের মেয়াদ আছে কি না বা মেয়াদ উর্ত্তীন হয়েছে কি না, তা দেখার সময় পায়না। তারা এসকল মেয়াদ উর্ত্তীন ঔষধ খেয়ে অস্থুস্থ্য হচ্ছে বলেও খবর পাওয়া গেছে। গ্রামাঞ্চলের কিছু চতুর ডাক্তাররা গ্রামের সহজ-সরল মানুষের সরলতার সুযোগটাই কাছে লাগাচ্ছে। গ্রামের সহজ-সরল মানুষকে বাঁচাতে এগিয়ে আসতে হবে ঔষধ তদারকি সংস্থাকে। নিতে হবে এই সকল অবৈধ ঔষধ ব্যবসায়ীদের বিরোদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ। জানা যায় কিছুদিন আগে মেয়াদ উর্ত্তীণ ঔষধ র্ফামেসীর বিরুদ্ধে স্থানীয় একটি পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়। সংবাদ প্রকাশের পর ঔষধ প্রশাসনের কিছু কর্মকর্তা তাঁতবাজার মার্কেটে আসার সংবাদ পায়। এসময় স্থানীয় ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ করে পালিয়ে যায়।

জানা যায়, এই সকল অবৈধ ঔষধ ব্যবসায়ীদের সাথে ঔষধ প্রশাসনের কিছু অসাধু কর্মকর্তা জড়িত থাকার কারণেই এসকল অবৈধ ঔষধ ব্যবসায়ীদের বন্ধ করা সম্ভব হচ্ছেনা। সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, এই ঔষধ ব্যবসায়ীর বেশীরভাগই কোন ধরনের চিকিৎসা সেবার অনুমোদন নেই। এদের অনেকেই অন্য ব্যবসা চালিয়ে আসছে। কিন্তু এই ধরনের নিম্নমানের ঔষধ বিক্রি করে মোটা অংকের টাকা কামানোর রাস্তা হিসাবে এরা ঔষধ ব্যবসাকে বেছে নিয়েছে। সচেতন মহল মনে করে অতি সত্ত¦র মেয়াদ উর্ত্তীন ঔষধ বিক্রি বন্ধ করার জোর দাবী জানান।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Design & Developed By Aynan